আজ বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল, ২০২৪ || ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ বৃহস্পতিবার, ০৮:১০ অপরাহ্ন
বুধবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২২   |   sonalisandwip.com
--

এই দিনটির অপেক্ষায় ছিল আর্জেন্টিনার জনগণ। ৩৬ বছর পর বিশ্বকাপের শিরোপা পাওয়ার পর আনন্দের বাঁধ ভেঙে যাবে তা অনুমেয়ই ছিল। প্রায় ৪০ লাখ মানুষ নেমেছিলেন রাজধানী বুয়েনস এইরেসের রাস্তায়। এর মধ্যে ওবেলিস্কের আশপাশেই জড়ো হয়েছিল ৩০ লাখ। বিজ্ঞাপন জনস্রোতের কারণে মেসিদের বাস এগোতেই পারছিল না। তাই বাধ্য হয়ে সেখান থেকে হেলিকপ্টারযোগে খেলোয়াড়দের সরিয়ে নেওয়া হলো। ছাদ খোলা বাসের ওপর বিভিন্ন জায়গা থেকে লাফিয়ে পড়ার চেষ্টা করছিলেন অনেকেই। বাসে ওঠার চেষ্টা করতে থাকেন অনেক সমর্থক। বাস এগোনোর কোনো উপায়ই ছিল না।

খেলোয়াড় এবং সমর্থক উভয়ের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে হেলিকপ্টারযোগে দলের সবাইকে সরিয়ে নেওয়া হয়। হেলিকপ্টার থেকেই জনগণের উল্লাস দেখেন তারা, ধীরে ধীরে উৎসবের স্থান থেকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয় মেসিদের। বাস থেকে সরাসরি হেলিকপ্টারে উঠে ওবেলিস্কের উদ্দেশে রওনা দেন মেসিরা। রাস্তায় জড়ো হওয়া সমর্থকরা এতে খেপে যান।

পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায় তাঁদের। এর আগে, আর্জেন্টিনা ফুটবল সংস্থার প্রেসিডেন্ট ক্লদিয়ো তাপিয়া টুইট করে লেখেন, ‘ওবেলিস্কে গিয়ে অভিবাদন জানানো হয়তো সবার জন্য সম্ভব হবে না। নিরাপত্তারক্ষীরা আমাদের এগোতে দিচ্ছেন না। সব ফুটবলারের প্রতিনিধি হিসেবে আমি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। ’